দশম গ্রেড পাবেন প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষকরা
আজকের কণ্ঠঃ ওয়েবসাইটে স্বাগতম | যোগাযোগ : 01730951049, 8802 58316319, 8802 5831 6320
২৮ অক্টোবর, ২০২০ ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন       রেজিষ্টার করুন | লগইন    


  


দশম গ্রেড পাবেন প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষকরা

নিউজ ডেস্কঃ ০৭-০১-২০২০ ০৭:১৪ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :  

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের দশম গ্রেড দেয়া হবে। এরিমধ্যে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের দুটি ধাপে বেতন বৃদ্ধি করা হয়েছে।

দ্রুত প্রধান শিক্ষকদের আরো এক ধাপ গ্রেড উন্নীত করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মো. জাকির হোসেন।

মঙ্গলবার গোপালগঞ্জে মিড-ডে-মিল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা জানান। মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে দেশের ১৬ টি উপজেলায় একযোগে মিড ডে মিল উদ্বোধন করা হয়।

প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শতভাগ শিক্ষার্থী ভর্তি নিশ্চিত করতেও ঝরে পড়ার হার নির্মূলে মিড-ডে-মিল কার্যক্রম চালু করা হচ্ছে। বর্তমানে দেশের ১৬টি উপজেলার দুই হাজার ১৬৬ বিদ্যালয়ের চার লাখ ৪ লাখ ১০ হাজার ২৩৮ জন শিক্ষার্থীকে এ কার্যক্রমের আওতায় আনা হয়েছে।

এর অংশ হিসেবে গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ৩৩টি বিদ্যালয়ে কার্যক্রমের আওতায় আনা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে দেশের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষকদের মধ্যে নানা ধরনের অসন্তোষ রয়েছে। বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে বিভিন্ন সময়ে তারা আন্দোলনে যুক্ত হয়েছেন। আমরা তাদের যৌক্তিক দাবি-দাওয়াগুলো বাস্তবায়ন করছি। ইতোমধ্যে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের গ্রেড বৃদ্ধি করা হয়েছে। বর্তমানে প্রধান শিক্ষকদের ১১ গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের ১২ গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে। ভবিষ্যতে প্রধান শিক্ষকদের দশম গ্রেড প্রদান করা হবে।’

জাকির হোসেন আরো বলেন, শিক্ষকদের যৌক্তিক সকল দাবী দাওয়া মেনে নেওয়া হবে, তবে আমরা চাই, শিক্ষকরা আমাদের সন্তানদের সঠিক মানুষ হিসেবে গড়ে তুলবেন। পরবর্তী প্রজন্মকে যদি সঠিক মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব না হয় তবে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ রক্ষা করা সম্ভব হবে না।

বিশেষ অতিথি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন বলেন, ‘প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বর্তমানে শতভাগ ছেলেমেয়েরা স্কুলে ভর্তি হচ্ছে। বছরের প্রথম দিনে বিনামূল্যের বই বিতরণ, শিক্ষা উপকরণ ও প্রতিটি শিক্ষার্থীর মায়েদের হাতে উপবৃত্তি বাবদ অর্থ তুলে দেওয়া হচ্ছে।’

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (চলতি দায়িত্ব) সোহেল আহমেদ, গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা, রাজনীতিবিদ, স্কুল প্রতিনিধি সদস্যরা।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা।

০৭-০১-২০২০ ০৭:১৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে


পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ

আজকের কণ্ঠঃ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

অন্যান্য খবরসমুহ
: আরো খরবসমুহ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ প্রকাশিত
ফেসবুকে আজকের কণ্ঠঃ
আজকের কণ্ঠঃ ফোকাস
বিজ্ঞাপন

ভিজিটর সংখ্যা
100
২৮ অক্টোবর, ২০২০ ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন