ভোলায় বিপুল পরিমাণ ত্রাণ সহায়তা নিয়ে স্বল্প আয়ের মানুষের পাশে বিবিএস ও নাহী গ্রুপ
আজকের কণ্ঠঃ ওয়েবসাইটে স্বাগতম | যোগাযোগ : 01730951049, 8802 58316319, 8802 5831 6320
৩১ অক্টোবর, ২০২০ ০৬:২৭ অপরাহ্ন       রেজিষ্টার করুন | লগইন    


  


ভোলায় বিপুল পরিমাণ ত্রাণ সহায়তা নিয়ে স্বল্প আয়ের মানুষের পাশে বিবিএস ও নাহী গ্রুপ

নিউজ ডেস্কঃ ০১-০৫-২০২০ ০৪:২৮ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

মানুষ মানুষের জন্য। জীবন জীবনের জন্য। এই অমিয় বাণী বুকে ধরে করোনাকালে সঙ্কটময় মুহুর্তে দরিদ্র ও স্বল্প আয়ের মানুষের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে দেশের স্বনামধ্যন্য ব্যবসায়ী শিল্পগোষ্ঠী বিবিএস ও নাহী গ্রুপ।

করোনার আঘাতের শুরু থেকেই ভোলার মানুষের পাশে রয়েছে বিবিএস ও নাহী গ্রুপ। গত ২৫মার্চ থেকে ভোলায় চিকিৎসা ও করোনা সুরক্ষা সামগ্রীসহ ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। গ্রুপ দুটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, দরিদ্র ও স্বল্প আয়ের সাড়ে তিন হাজার পরিবারকে পুরো রমজান মাসের বাজার ঘরে পৌঁছে দেয়া হবে। এর আগে প্রাথমিকভাবে এই শিল্পগ্রুপের পক্ষ থেকে হত-দরিদ্র মানুষের মাঝে ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ৩ কেজি আলু, ১ কেজি পেঁয়াজ, ১ কেজি লবণ, হাফ লিটার ভোজ্য তেল ও ১টি সাবানসহ বিপুল পরিমাণ সেবা প্যাক সরবরাহ করা হয়।

করোনা আঘাতে বিপর্যস্ত মানুষ। স্থবির অর্থনৈতিক কর্মকান্ড। সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়েছেন দিন এনে দিন খাওয়া শ্রমজীবী মানুষেরা। খেটে খাওয়া এসব মানুষের জন্য সেবার দরজা খুলে দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে বিবিএস ও নাহী গ্রুপ।

‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ হিসেবে পরিচিত বিশিষ্ট শিল্পপতি ও গ্রুপ দুটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী আবু নোমান হাওলাদার, সিআইপি বলেন, ‘জাতির ক্রান্তিকালে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেয়ে বড় কোনো দায়িত্ব হতে পারে না। বিবিএস এবং নাহী গ্রুপ আন্তরিকভাবে সেই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টাই অব্যাহত রেখেছে।’ অতীতেও হত-দরিদ্র মানুষের পাশে প্রসারিত হৃদয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে এই শিল্পগোষ্ঠী। ‘এই সঙ্কট অবশ্যই কেটে যাবে। করোনার বিরুদ্ধে সম্মিলীত প্রচেষ্টায় আমরা বিজয়ী হবোই। কেননা, কেবল মনোবল ও প্রাণভরা সাহস নিয়ে মুক্তিযুদ্ধে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জন করেছি আমরা। বীরের জাতি কখনো ক্ষণস্থায়ী সঙ্কটের কাছে পরাজিত হতে পারে না।’ বলেন, প্রকৌশলী আবু নোমান হাওলাদার। এ সঙ্কটে সমাজের বিত্তবানদের সাধ্যমত সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে এগিয়ে আসারও আহবান জানান তিনবারের এই সিআইপি।

জানা গেছে, মার্চ থেকেই বিবিএস ও নাহী গ্রুপের সহযোগিতায় বিডিএফআই’র ২২২জন স্বেচ্ছাসেবক একযোগে ১০টি পয়েন্টে ভোলার প্রতিটি থানায় করোনা সচেতনতামূলক প্রচারণা শুরু করে। করোনা বিপর্যস্ত পৃথিবীতে যখন স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রীর অভাবে চিকিৎসাসেবা ব্যহত হচ্ছিলো ঠিক তখনই গেল ৪ এপ্রিল স্বাস্থ্যসেবা দানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর নিরবচ্ছিন্ন সেবা অব্যাহত রাখতে বিডিএফআই স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যমে ভোলা জেলাপ্রশাসক ও সিভিল সার্জনের হাতে বিভিন্ন প্রকারের এগারো হাজার স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী পৌঁছে দেন প্রকৌশলী আবু নোমান হাওলাদার।

জনসচেতনতা বাড়াতে প্রচারণা চালানোর পাশাপাশি, জীবাণুনাশক ছিটানো এবং ভোলায় স্বাস্থ্যসেবা দেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে করোনা স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রদানের কাজ এক যোগে করে যাচ্ছে বিবিএস ক্যাবলস। ফেরীসহ ২৪টি স্বেচ্ছাসেবক টীমের কাছে পৌঁছে দেয়া হয় জীবাণু নাশক, এন্টিসেপ্টিক ও স্প্রে মেশিনসহ সকল প্রকার সামগ্রী।

লালমোহন ও তজুমদ্দিন উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার স্বাস্থ্যসেবা দানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকেও ৫০ হাজার বিভিন্ন প্রকার স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী দিয়েছে বিবিএস ও নাহী গ্রুপ। এসব সামগ্রী সারাদেশে পৌঁছে দেবে বিডিএফআই।

 

 

০১-০৫-২০২০ ০৪:২৮ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে


পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ

আজকের কণ্ঠঃ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

অন্যান্য খবরসমুহ
: আরো খরবসমুহ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ প্রকাশিত
ফেসবুকে আজকের কণ্ঠঃ
আজকের কণ্ঠঃ ফোকাস
বিজ্ঞাপন

ভিজিটর সংখ্যা
100
৩১ অক্টোবর, ২০২০ ০৬:২৭ অপরাহ্ন