5:00 am, Tuesday, 23 July 2024

বরগুনায় অপরাধ বিচিত্রা পত্রিকায় পরিচয়দানকারী সাংবাদিক সহ দুইজনের বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইবুনাল আইনে মামলা

সোহরাব বরগুনা সংবাদদাতা:

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা: সংবাদ প্রকাশ ও শেয়ার করায় সুনামহানির অভিযোগ এনে বরগুনার দুইজনের বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইবুনাল আইনে মামলা করেছেন জহিরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি। যাহার মামলা নাম্বার সাইবার ট্রাইব্যুনাল পিটিশন নং-১৭৩ /২০২৩ । ধারাঃ ২০২৩ সালের সাইবার নিরাপত্তা আইনের ২৪/ ২৫/ ২৬/ ২৯/ ৩১ ধারা। সোমবার (২৭ নভেম্বর ২০২৩ ইং) বরিশাল সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলাটি করেন এশিয়ান টিভির বরগুনা প্রতিনিধি মোঃ জহিরুল ইসলাম। সাইবার ট্রাইবুনাল বরিশাল জেলা ও দায়রা জজ এর বিচারক মো. গোলাম ফারুক মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য বরগুনা সদর থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ সহকারী। মামলার বাদী জহিরুল ইসলাম বরগুনা সদর উপজেলার, ১০নং নলটোনা ইউনিয়নের, শিয়ালিয়া গ্রামের হোসেন মল্লিক এর ছেলে। আসামিরা হলেন- বরগুনার, তালতলী উপজেলার , পচা কোড়ালিয়া গ্রামের , গাজী আ: মান্নানের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (৪২) তিনি অপরাধ বিচিত্রা পত্রিকার বার্তা সম্পাদক পরিচয় দানকারী ও তার সহযোগী বরগুনা সদর উপজেলার, ৪নং কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়নের, আয়লা আদাবাড়িয়া গ্রামের গনি মৃধার ছেলে নূর হোসেন ইমাম। মামলা সূত্রে জানা যায় বিগত ইংরেজী ২৩ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ বৃহস্পতিবার দুপুর অনুমান ২.৫৮ ঘটিকার সময় , ২৪ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ শুক্রবার সকাল অনুমান ১০.৪১ ঘটিকার সময় , ২৫ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ শনিবার সকাল অনুমান ১০.৩৪ ঘটিকার সময় বরগুনা জেলার তালতলী থানার পচা কোড়ালিয়া সাকিনে ১নং আসামীর বসতঘরে এবং বরগুনা সদর আয়লা আদাবাড়ীয়া সাকিনে ২নং আসামীর বসত ঘরে। আসামীরা অসৎ প্রকৃতির লোক, ১নং আসামি রাশেদুল ইসলাম চট্টগ্রাম জেলা শহরে দীর্ঘ বছর যাবত সিএনজি গাড়ির চালক ছিলেন, তার বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক মামলা, তাঁরা সাংবাদিক পরিচয়ে বিভিন্ন জেলায় প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে ছবি তুলে সিন্ডিকেটের দালালি করে আসছেন , বিভিন্ন মানুষকে ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা পয়সা আত্মসাৎ করিয়া আসিতেছে। বাদী জহিরুল ইসলাম বরগুনা জেলার এশিয়ান টিভির জেলা প্রতিনিধি হিসাবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালণ করিয়া আসিতেছে। বাদী এশিয়ান টিভির জেলা প্রতিনিধি হিসাবে তিনবার শ্রেষ্ঠ রিপোর্টার নির্বাচিত হয়েছে। মামলার ১নং স্বাক্ষী মোঃ সোহরাব হোসেন চ্যানেল এস টিভির বরগুনা জেলা প্রতিনিধি হিসাবে সুনামের সহিত কাজ করে আসছেন। মামলার ১নং স্বাক্ষী ৪নং স্বাক্ষী পরস্পর আত্মীয় স্বজন। ৪নং স্বাক্ষীর জমি জমা নিয়া বরগুনা বিজ্ঞ দেওয়ানী আদালতে মোকদ্দমা চলিতেছে। ৪নং স্বাক্ষী তাহার জমি জমা নিয়া মামলা মোকদ্দমা চলমান থাকায় তালতলী উপজেলা শহরে মানব বন্ধন করে। বাদী জহিরুল ইসলাম ও স্বাক্ষী সোহরাব হোসেন উক্ত মানব বন্ধনের খবর সংগ্রহের জন্য তালতলীতে গেলে আসামীদের সহিত কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির একপর্যায় আসামীরা বাদী ও ১নং স্বাক্ষীর সাথে দূব্যবহার করে এবং ক্ষিপ্ত হইয়া অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে। এরই ধারাবাহিকতায় ১নং আসামীর বসত ঘরে বসে আসামীর ফেইসবুক আইডি এবং ২নং আসামীর ফেইসবুক আইডি এর থেকে অত্যন্ত আজে বাজে কুরুচিপূর্ণ আপত্তিকর মানহানিকর এবং মিথ্যা তথ্য প্রেরণ করেন। যাহা আংশিক নিন্মরূপ: “বরগুনার দুই সাংবাদিক মিলে আত্মসাৎ করেছেন ৭৫ লক্ষ টাকা” “বরগুনা জেলার বিভিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে আতঙ্কের নাম এশিয়ান টিভির বরগুনা প্রতিনিধি জহির ও চ্যানেল এস এর প্রতিনিধি সোহরাব হোসেন। দুই কথিত সাংবাদিকের খপ্পড়ে পরে নিঃস্ব হয়েছে অনেক অসহায় পরিবার। হাতেগোনা কয়েকজন তাহাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলেও ক্যামেরার জনজনানির ভয়ে চুপসে যাওয়াদের সংখ্যাই বেশি। তারা প্রতারণার জাল ছড়িয়ে দিচ্ছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদের লাগাম টেনে ধরা না হলে অনেক অসহায় মানুষ নিঃস্ব হয়ে যাবে” এই মর্মে অভিযুক্ত আসামিদয় বিগত ইংরেজী ২৪ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ শুক্রবার সকাল অনুমান ১০.৪১ ঘটিকার সময় ১নং আসামী Rashedul Islam নামীয় ফেইসবুক আইডি থেকে “বরগুনা “৭৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে কথিত দুই সাংবাদিক” ইহার ভিডিও প্রকাশ করে। বিগত ইংরেজী ২৩ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২.৫৮ ঘটিকার সময় ১নং আসামী Rashedul Islam নামীয় ফেইসবুক অনুমোদন বিহীন অনলাইন থেকে FIR24tv “৭৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে কথিত দুই সাংবাদিক” ইহার ভিডিও প্রকাশ করে। ২নং আসামী বিগত ইং ২৪ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ শুক্রবার অনুমান সকাল অনুমান ১০.৪৭ ঘটিকার সময় Nur Hossan Imam নামীয় ফেইসবুক আইডি থেকে উক্ত খবর প্রকাশ করেন। ইহাতে আমার ও ১নং স্বাক্ষীর সুনাম ভাবমূর্তি আর্থিক ও সামাজিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হইয়াছে। আসামীর এমন আচরনে ইলেকট্রনিক বিন্যাস মানহানিকর তথ্য প্রকাশ করায় বাদী ও ১নং স্বাক্ষী সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন হয়েছে ও তাদের ব্যক্তিগত সুনাম নষ্ট করে। ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত ব্যক্তিরা আত্ম গোপনে রয়েছে। এবং তাদের মুঠোফোনে বন্ধ পাওয়া যায়। বাদী জহিরুল ইসলাম ও সাক্ষী সোহরাব হোসেন প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার প্রার্থনা করেন। মোঃ সোহরাব হোসেন বরগুনা জেলা সংবাদদাতা তারিখ ২৮-১১-২৩ ইং

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপডেট সময় : 03:05:43 pm, Tuesday, 28 November 2023
84 বার পড়া হয়েছে
error: Content is protected !!

বরগুনায় অপরাধ বিচিত্রা পত্রিকায় পরিচয়দানকারী সাংবাদিক সহ দুইজনের বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইবুনাল আইনে মামলা

আপডেট সময় : 03:05:43 pm, Tuesday, 28 November 2023

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা: সংবাদ প্রকাশ ও শেয়ার করায় সুনামহানির অভিযোগ এনে বরগুনার দুইজনের বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইবুনাল আইনে মামলা করেছেন জহিরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি। যাহার মামলা নাম্বার সাইবার ট্রাইব্যুনাল পিটিশন নং-১৭৩ /২০২৩ । ধারাঃ ২০২৩ সালের সাইবার নিরাপত্তা আইনের ২৪/ ২৫/ ২৬/ ২৯/ ৩১ ধারা। সোমবার (২৭ নভেম্বর ২০২৩ ইং) বরিশাল সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলাটি করেন এশিয়ান টিভির বরগুনা প্রতিনিধি মোঃ জহিরুল ইসলাম। সাইবার ট্রাইবুনাল বরিশাল জেলা ও দায়রা জজ এর বিচারক মো. গোলাম ফারুক মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য বরগুনা সদর থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ সহকারী। মামলার বাদী জহিরুল ইসলাম বরগুনা সদর উপজেলার, ১০নং নলটোনা ইউনিয়নের, শিয়ালিয়া গ্রামের হোসেন মল্লিক এর ছেলে। আসামিরা হলেন- বরগুনার, তালতলী উপজেলার , পচা কোড়ালিয়া গ্রামের , গাজী আ: মান্নানের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (৪২) তিনি অপরাধ বিচিত্রা পত্রিকার বার্তা সম্পাদক পরিচয় দানকারী ও তার সহযোগী বরগুনা সদর উপজেলার, ৪নং কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়নের, আয়লা আদাবাড়িয়া গ্রামের গনি মৃধার ছেলে নূর হোসেন ইমাম। মামলা সূত্রে জানা যায় বিগত ইংরেজী ২৩ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ বৃহস্পতিবার দুপুর অনুমান ২.৫৮ ঘটিকার সময় , ২৪ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ শুক্রবার সকাল অনুমান ১০.৪১ ঘটিকার সময় , ২৫ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ শনিবার সকাল অনুমান ১০.৩৪ ঘটিকার সময় বরগুনা জেলার তালতলী থানার পচা কোড়ালিয়া সাকিনে ১নং আসামীর বসতঘরে এবং বরগুনা সদর আয়লা আদাবাড়ীয়া সাকিনে ২নং আসামীর বসত ঘরে। আসামীরা অসৎ প্রকৃতির লোক, ১নং আসামি রাশেদুল ইসলাম চট্টগ্রাম জেলা শহরে দীর্ঘ বছর যাবত সিএনজি গাড়ির চালক ছিলেন, তার বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক মামলা, তাঁরা সাংবাদিক পরিচয়ে বিভিন্ন জেলায় প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে ছবি তুলে সিন্ডিকেটের দালালি করে আসছেন , বিভিন্ন মানুষকে ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা পয়সা আত্মসাৎ করিয়া আসিতেছে। বাদী জহিরুল ইসলাম বরগুনা জেলার এশিয়ান টিভির জেলা প্রতিনিধি হিসাবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালণ করিয়া আসিতেছে। বাদী এশিয়ান টিভির জেলা প্রতিনিধি হিসাবে তিনবার শ্রেষ্ঠ রিপোর্টার নির্বাচিত হয়েছে। মামলার ১নং স্বাক্ষী মোঃ সোহরাব হোসেন চ্যানেল এস টিভির বরগুনা জেলা প্রতিনিধি হিসাবে সুনামের সহিত কাজ করে আসছেন। মামলার ১নং স্বাক্ষী ৪নং স্বাক্ষী পরস্পর আত্মীয় স্বজন। ৪নং স্বাক্ষীর জমি জমা নিয়া বরগুনা বিজ্ঞ দেওয়ানী আদালতে মোকদ্দমা চলিতেছে। ৪নং স্বাক্ষী তাহার জমি জমা নিয়া মামলা মোকদ্দমা চলমান থাকায় তালতলী উপজেলা শহরে মানব বন্ধন করে। বাদী জহিরুল ইসলাম ও স্বাক্ষী সোহরাব হোসেন উক্ত মানব বন্ধনের খবর সংগ্রহের জন্য তালতলীতে গেলে আসামীদের সহিত কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির একপর্যায় আসামীরা বাদী ও ১নং স্বাক্ষীর সাথে দূব্যবহার করে এবং ক্ষিপ্ত হইয়া অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে। এরই ধারাবাহিকতায় ১নং আসামীর বসত ঘরে বসে আসামীর ফেইসবুক আইডি এবং ২নং আসামীর ফেইসবুক আইডি এর থেকে অত্যন্ত আজে বাজে কুরুচিপূর্ণ আপত্তিকর মানহানিকর এবং মিথ্যা তথ্য প্রেরণ করেন। যাহা আংশিক নিন্মরূপ: “বরগুনার দুই সাংবাদিক মিলে আত্মসাৎ করেছেন ৭৫ লক্ষ টাকা” “বরগুনা জেলার বিভিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে আতঙ্কের নাম এশিয়ান টিভির বরগুনা প্রতিনিধি জহির ও চ্যানেল এস এর প্রতিনিধি সোহরাব হোসেন। দুই কথিত সাংবাদিকের খপ্পড়ে পরে নিঃস্ব হয়েছে অনেক অসহায় পরিবার। হাতেগোনা কয়েকজন তাহাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলেও ক্যামেরার জনজনানির ভয়ে চুপসে যাওয়াদের সংখ্যাই বেশি। তারা প্রতারণার জাল ছড়িয়ে দিচ্ছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদের লাগাম টেনে ধরা না হলে অনেক অসহায় মানুষ নিঃস্ব হয়ে যাবে” এই মর্মে অভিযুক্ত আসামিদয় বিগত ইংরেজী ২৪ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ শুক্রবার সকাল অনুমান ১০.৪১ ঘটিকার সময় ১নং আসামী Rashedul Islam নামীয় ফেইসবুক আইডি থেকে “বরগুনা “৭৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে কথিত দুই সাংবাদিক” ইহার ভিডিও প্রকাশ করে। বিগত ইংরেজী ২৩ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২.৫৮ ঘটিকার সময় ১নং আসামী Rashedul Islam নামীয় ফেইসবুক অনুমোদন বিহীন অনলাইন থেকে FIR24tv “৭৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে কথিত দুই সাংবাদিক” ইহার ভিডিও প্রকাশ করে। ২নং আসামী বিগত ইং ২৪ নভেম্বর ২০২৩ ইং রোজ শুক্রবার অনুমান সকাল অনুমান ১০.৪৭ ঘটিকার সময় Nur Hossan Imam নামীয় ফেইসবুক আইডি থেকে উক্ত খবর প্রকাশ করেন। ইহাতে আমার ও ১নং স্বাক্ষীর সুনাম ভাবমূর্তি আর্থিক ও সামাজিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হইয়াছে। আসামীর এমন আচরনে ইলেকট্রনিক বিন্যাস মানহানিকর তথ্য প্রকাশ করায় বাদী ও ১নং স্বাক্ষী সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন হয়েছে ও তাদের ব্যক্তিগত সুনাম নষ্ট করে। ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত ব্যক্তিরা আত্ম গোপনে রয়েছে। এবং তাদের মুঠোফোনে বন্ধ পাওয়া যায়। বাদী জহিরুল ইসলাম ও সাক্ষী সোহরাব হোসেন প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার প্রার্থনা করেন। মোঃ সোহরাব হোসেন বরগুনা জেলা সংবাদদাতা তারিখ ২৮-১১-২৩ ইং