9:12 am, Friday, 19 April 2024

ফুলছড়িতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কৃষকের মৃত্যু

প্রতিনিধির নাম

মোস্তাকিম রহমান,গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলায় জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ের বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত নুরুনবী মিয়া (৫০) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার(১৯ মার্চ)আনুমানিক ভোর ৪টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। এই মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিহতের স্বজন ও গ্রামবাসীরা বিচারের দাবিতে থানা ঘেরাও করেছে।

নিহত নুরুন্নবী মিয়া নামের ব্যক্তি সে উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ বুড়াইল গ্রামের গ্যাদা শেখের ছেলে।

স্বজনরা জানান,
মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সকালে নিহত নুরুন্নবীর স্বজন ও গ্রামবাসীরা ফুলছড়ি থানা ঘেরাও করলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে গ্রামবাসীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

স্থানীয়রা জানান, নুরুন্নবী শেখের সঙ্গে প্রতিবেশিদের সঙ্গে একটি জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। সোমবার (১৮ মার্চ) সকালের দিকে নুরুন্নবী মিয়া নামের ব্যক্তি সে ওই জমিতে নামলে প্রতিপক্ষ তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে নুরন্নবীসহ বেশ কয়েকজন গুরুতর আহত হয়।

এরপরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত নুরুন্নবীকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় (মঙ্গলবার) ভোর আনুমানিক ০৪ টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এখবর পেয়ে নিহতের স্বজন ও গ্রামবাসীরা হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে সকালে লাশ নিয়ে ফুলছড়ি থানা ঘেরাও করে। এসময় পুলিশের সঙ্গে তাদের তর্কবিতর্ক ও ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। উত্তেজিত গ্রামবাসীকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে।

পরে পুলিশ লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

এঘটনায় নিহতের ভাই দুলা মিয়া বাদী হয়ে ফুলছড়ি থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ প্রতিপক্ষের আব্দুল গোফফার ও জহুরুল মিয়া নামের দু’জনকে গ্রেপ্তার করে।

এঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ফুলছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাফিকুজ্জামান বসুনিয়া বলেন, নিহতের স্বজন ও গ্রামবাসীরা লাশ নিয়ে থানায় এসে পুলিশের সঙ্গে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। পরে পুলিশ তাদের কাছ থেকে লাশ নিয়ে ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। এ ঘটনায় মামলা নেওয়া হয়েছে এবং দুজনকে আটক করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলেও জানান তিনি।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপডেট সময় : 12:53:37 pm, Wednesday, 20 March 2024
17 বার পড়া হয়েছে
error: Content is protected !!

ফুলছড়িতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কৃষকের মৃত্যু

আপডেট সময় : 12:53:37 pm, Wednesday, 20 March 2024

মোস্তাকিম রহমান,গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলায় জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ের বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত নুরুনবী মিয়া (৫০) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার(১৯ মার্চ)আনুমানিক ভোর ৪টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। এই মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিহতের স্বজন ও গ্রামবাসীরা বিচারের দাবিতে থানা ঘেরাও করেছে।

নিহত নুরুন্নবী মিয়া নামের ব্যক্তি সে উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ বুড়াইল গ্রামের গ্যাদা শেখের ছেলে।

স্বজনরা জানান,
মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সকালে নিহত নুরুন্নবীর স্বজন ও গ্রামবাসীরা ফুলছড়ি থানা ঘেরাও করলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে গ্রামবাসীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

স্থানীয়রা জানান, নুরুন্নবী শেখের সঙ্গে প্রতিবেশিদের সঙ্গে একটি জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। সোমবার (১৮ মার্চ) সকালের দিকে নুরুন্নবী মিয়া নামের ব্যক্তি সে ওই জমিতে নামলে প্রতিপক্ষ তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে নুরন্নবীসহ বেশ কয়েকজন গুরুতর আহত হয়।

এরপরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত নুরুন্নবীকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় (মঙ্গলবার) ভোর আনুমানিক ০৪ টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এখবর পেয়ে নিহতের স্বজন ও গ্রামবাসীরা হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে সকালে লাশ নিয়ে ফুলছড়ি থানা ঘেরাও করে। এসময় পুলিশের সঙ্গে তাদের তর্কবিতর্ক ও ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। উত্তেজিত গ্রামবাসীকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে।

পরে পুলিশ লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

এঘটনায় নিহতের ভাই দুলা মিয়া বাদী হয়ে ফুলছড়ি থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ প্রতিপক্ষের আব্দুল গোফফার ও জহুরুল মিয়া নামের দু’জনকে গ্রেপ্তার করে।

এঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ফুলছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাফিকুজ্জামান বসুনিয়া বলেন, নিহতের স্বজন ও গ্রামবাসীরা লাশ নিয়ে থানায় এসে পুলিশের সঙ্গে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। পরে পুলিশ তাদের কাছ থেকে লাশ নিয়ে ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। এ ঘটনায় মামলা নেওয়া হয়েছে এবং দুজনকে আটক করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলেও জানান তিনি।