7:44 am, Friday, 19 April 2024

জাতীয়করণের দাবিতে স্কুলে ঝুলছে তালা

গাইবান্ধায় মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবিতে স্কুলে ঝুলছে তালা

মোস্তাকিম রহমান, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবিতে গাইবান্ধার বেশকিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (এমপিওভূক্ত) পাঠদান বন্ধ করেছে শিক্ষকেরা। এছাড়াও কোন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেণি কক্ষে ঝুলানো হয়েছে তালা। এভাবে কর্ম বিরতী পালন করছে আন্দোলনকারী শিক্ষকরা।

মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির ডাকে গাইবান্ধা সদরের ঘাগোয়া এমবি উচ্চ বিদ্যালয়ে দেখা গেছে- পাঠদান বন্ধ রাখার চিত্র। এসময় প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকরা কর্মবিরতী করলে শিক্ষার্থীরা পাঠগ্রহণ করতে এসে ফিরে গেছে বাড়িতে। একই দৃশ্য দেখা যায়- সাদুল্লাপুর বহুমুখী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে। এখানে শ্রেণিকক্ষে তালা ঝুলিয়ে কর্মসূচি পালন করেন আন্দোলনকারী শিক্ষকেরা।

জানা যায়, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির ডাকে দেশের মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবিতে ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবে বেশ কয়েকদিন ধরে অবস্থান কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে শিক্ষক-কর্মচারীরা। এরই অংশ হিসেবে গাইবান্ধা জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বেশ কিছু মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একই কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছে। এছাড়াও ক্লাস বন্ধ রেখে অনেক শিক্ষক যোগ দিচ্ছেন ঢাকার কর্মসূচিতে।

আন্দোলনকারী শিক্ষকেরা বলছেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা এই কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানান, প্রতিদিনের মতো আজ স্কুলে এসে দেখি সকল স্যারের একত্রে হয়ে দাঁড়িয়ে ও বসে আছেন। ক্লাস রুমে তালা লাগনো হয়েছে। কোন পাঠদান না থাকায় বাড়ি ফিরতে হচ্ছে আমাদেরকে।

তুলশীঘাট কাশিনাথপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান জানান, সরকারি বিদ্যালয়ের মত আমাদের (এমপিওভূক্ত) মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো শিক্ষার মানউন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই বেতন-ভাতা বৈষষ্য কাম্য নয়। আমিও চাই দেশের সকল মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো সরকারিকরণ করা হোক।

সাদুল্লাপুর উপজেলা প্রধান শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এনশাদ আলী বলেন,
জাতীয়করণের দাবিতে এ উপজেলার কিছু সংখ্যক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস বন্ধ রেখেছে। আমার স্কুলেও পাঠদান বন্ধ করা হয়েছে।

গাইবান্ধা জেলা প্রধান শিক্ষক পরিষদের সভাপতি মাহাবুব আলম বলেন, সমগ্র দেশে (এমপিওভূক্ত) মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারিকরণের দাবিতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির ডাকে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। এটি আমাদের যৌক্তিক দাবি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এ কর্মসূচি চলমান থাকবে।

এব্যাপারে গাইবান্ধা জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোছা. রোকসানা খাতুন বলেন, এ জেলায় মাধ্যমিক পর্যায়ে প্রায় ৬৭৪ টি বিদ্যালয় রয়েছে। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবির বিষয়ে আমার কোন মন্তব্য নেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপডেট সময় : 03:11:14 pm, Tuesday, 18 July 2023
74 বার পড়া হয়েছে
error: Content is protected !!

জাতীয়করণের দাবিতে স্কুলে ঝুলছে তালা

গাইবান্ধায় মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবিতে স্কুলে ঝুলছে তালা

আপডেট সময় : 03:11:14 pm, Tuesday, 18 July 2023

বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবিতে গাইবান্ধার বেশকিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (এমপিওভূক্ত) পাঠদান বন্ধ করেছে শিক্ষকেরা। এছাড়াও কোন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেণি কক্ষে ঝুলানো হয়েছে তালা। এভাবে কর্ম বিরতী পালন করছে আন্দোলনকারী শিক্ষকরা।

মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির ডাকে গাইবান্ধা সদরের ঘাগোয়া এমবি উচ্চ বিদ্যালয়ে দেখা গেছে- পাঠদান বন্ধ রাখার চিত্র। এসময় প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকরা কর্মবিরতী করলে শিক্ষার্থীরা পাঠগ্রহণ করতে এসে ফিরে গেছে বাড়িতে। একই দৃশ্য দেখা যায়- সাদুল্লাপুর বহুমুখী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে। এখানে শ্রেণিকক্ষে তালা ঝুলিয়ে কর্মসূচি পালন করেন আন্দোলনকারী শিক্ষকেরা।

জানা যায়, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির ডাকে দেশের মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবিতে ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবে বেশ কয়েকদিন ধরে অবস্থান কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে শিক্ষক-কর্মচারীরা। এরই অংশ হিসেবে গাইবান্ধা জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বেশ কিছু মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একই কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছে। এছাড়াও ক্লাস বন্ধ রেখে অনেক শিক্ষক যোগ দিচ্ছেন ঢাকার কর্মসূচিতে।

আন্দোলনকারী শিক্ষকেরা বলছেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা এই কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানান, প্রতিদিনের মতো আজ স্কুলে এসে দেখি সকল স্যারের একত্রে হয়ে দাঁড়িয়ে ও বসে আছেন। ক্লাস রুমে তালা লাগনো হয়েছে। কোন পাঠদান না থাকায় বাড়ি ফিরতে হচ্ছে আমাদেরকে।

তুলশীঘাট কাশিনাথপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান জানান, সরকারি বিদ্যালয়ের মত আমাদের (এমপিওভূক্ত) মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো শিক্ষার মানউন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই বেতন-ভাতা বৈষষ্য কাম্য নয়। আমিও চাই দেশের সকল মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো সরকারিকরণ করা হোক।

সাদুল্লাপুর উপজেলা প্রধান শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এনশাদ আলী বলেন,
জাতীয়করণের দাবিতে এ উপজেলার কিছু সংখ্যক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস বন্ধ রেখেছে। আমার স্কুলেও পাঠদান বন্ধ করা হয়েছে।

গাইবান্ধা জেলা প্রধান শিক্ষক পরিষদের সভাপতি মাহাবুব আলম বলেন, সমগ্র দেশে (এমপিওভূক্ত) মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারিকরণের দাবিতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির ডাকে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। এটি আমাদের যৌক্তিক দাবি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এ কর্মসূচি চলমান থাকবে।

এব্যাপারে গাইবান্ধা জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোছা. রোকসানা খাতুন বলেন, এ জেলায় মাধ্যমিক পর্যায়ে প্রায় ৬৭৪ টি বিদ্যালয় রয়েছে। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবির বিষয়ে আমার কোন মন্তব্য নেই।