7:34 am, Sunday, 21 April 2024

নাটোর-৪ গুরুদাসপুর -বড়াইগ্রামের এম পি অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস না ফেরার দেশে চলে গেলেন

স্টাফ রিপোর্টারঃ এম,মাসুদ রানা সুমন।

স্টাফ রিপোর্টারঃ মোঃ মাসুদ রানা।

নাটোর-০৪ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলিগের সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপি মারা গেছেন।
আজ সকাল ৭.২২ ঘটিকার সময় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। তিনি শ্বাসকষ্ট৷৷ রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭৬ বছর। আব্দুল কুদ্দুসের পৈতৃক বাড়ি নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার চলনবিল অধ্যুষিত বিলসা গ্রামে ৩০ অক্টোবর ১৯৪৬ সালে জন্মগ্রহন করেন। তিনি রাজশাহী কলেজের নির্বাচিত ভিপি ছিলেন এবং বৃহত্তর রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকত্তোর ডিগ্রি অর্জন করেছেন। মুক্তিযুদ্ধ শুরু হওয়ার পূর্বে রাজশাহীতে তিনিই প্রথম পাকিস্তানের পতাকায় অগ্নিসংযোগ করেন। পরবর্তীতে ভারতে ট্রেনিং নিয়ে মুজিব বাহিনীর আঞ্চলিক কমান্ডার ও সংগঠকের ভূমিকা পালন করেন।তিনি পঞ্চম, সপ্তম, নবম, দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। সপ্তম সংসদে তিনি মৎস্য ও পশু সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর দ্বায়িত্ব পালন করেন।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপডেট সময় : 04:25:25 am, Wednesday, 30 August 2023
57 বার পড়া হয়েছে
error: Content is protected !!

নাটোর-৪ গুরুদাসপুর -বড়াইগ্রামের এম পি অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস না ফেরার দেশে চলে গেলেন

আপডেট সময় : 04:25:25 am, Wednesday, 30 August 2023

স্টাফ রিপোর্টারঃ মোঃ মাসুদ রানা।

নাটোর-০৪ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলিগের সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপি মারা গেছেন।
আজ সকাল ৭.২২ ঘটিকার সময় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। তিনি শ্বাসকষ্ট৷৷ রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭৬ বছর। আব্দুল কুদ্দুসের পৈতৃক বাড়ি নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার চলনবিল অধ্যুষিত বিলসা গ্রামে ৩০ অক্টোবর ১৯৪৬ সালে জন্মগ্রহন করেন। তিনি রাজশাহী কলেজের নির্বাচিত ভিপি ছিলেন এবং বৃহত্তর রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকত্তোর ডিগ্রি অর্জন করেছেন। মুক্তিযুদ্ধ শুরু হওয়ার পূর্বে রাজশাহীতে তিনিই প্রথম পাকিস্তানের পতাকায় অগ্নিসংযোগ করেন। পরবর্তীতে ভারতে ট্রেনিং নিয়ে মুজিব বাহিনীর আঞ্চলিক কমান্ডার ও সংগঠকের ভূমিকা পালন করেন।তিনি পঞ্চম, সপ্তম, নবম, দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। সপ্তম সংসদে তিনি মৎস্য ও পশু সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর দ্বায়িত্ব পালন করেন।