11:01 am, Wednesday, 22 May 2024

পঞ্চগড়ে আওয়ামীলীগের জন্য নিবেদিত প্রাণ তৌহিদ বিডিআর 

মোঃ রাশেদুল ইসলাম পঞ্চগড়।

মোঃ রাশেদুল ইসলাম, পঞ্চগড়।

পঞ্চগড়ে নিঃস্বার্থ ভাবে আওয়ামী লীগের জন্য নিবেদিত প্রাণ হিসেবে কাজ করছেন মোঃ তৌহিদুল ইসলাম (তৌহিদ বিডিআর)। সদর উপজেলার ৪নং কামাত কাজলদিঘী ইউনিয়নের দহলা পাড়া গ্রামের বাসিন্দা মোঃ তৌহিদুল ইসলাম। ১লা জানুয়ারি ১৯৭৭ সালে একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল মজিদ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে দেশের স্বাধীনতা অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। মোঃ তৌহিদুল ইসলাম ১৯৯৭ সালে (বিডিআর) বাংলাদেশ রাইফেলস এ যোগদান করেন। পরে ২০১৩ সালে ১৬ বছর ১৮ দিন চাকুরি করে (বিজিবি) বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ থেকে সেচ্ছায় অবসর গ্রহণ করে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত হন। বর্তমানে ৪নং কামাত কাজলদিঘী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড এর সভাপতি ও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করছেন। স্থানীয়রা জানান, জনাব তৌহিদুল ইসলাম (তৌহিদ বিডিআর) অনেক ভালো মনের একজন মানুষ। তিনি কঠোর আওয়ামীলীগ ও সবার সাথে মিশুক। দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে পঞ্চগড় জেলা,উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে অনেক নেতার আঙুল ফুলে কলাগাছ হলেও তৌহিদুল ইসলাম এর কোন উন্নতি হয়নি। অথচ ১জানুয়ারি থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সকল জাতীয় দিবস ও দলীয় কর্মসূচির আয়োজন করেন তিনি নিজ খরচে।তিনি একাধারে সমাজ সেবক, শিক্ষা অনুরাগি, ক্রিয়া ও সংস্কৃতি প্রেমিক। এরকম নিঃস্বার্থ ব্যক্তিরা একটি রাজনৈতিক দলের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বোলে জানান স্থানীয়রা। এ বিষয়ে মোঃ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে আমার পরিবার আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে আসতেছি। আমি বা আমার পরিবার স্বার্থের জন্য আওয়ামীলীগ করি না। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বুকে লালন করে কাজ করছি। সেভাবেই সকল কার্যক্রম পরিচালনা করছি। তবে অনেকেই দলীয় সাইনবোর্ড নিয়ে বেড়ায় অথচ দলের জন্য কাজ করেনা, দলীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে না। এগুলো দেখলে নিজের অনেক খারাপ লাগে। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের চিত্র সকলের সামনে তুলে ধরতে কাজ করছি। বিগত দিনে অভ্যন্তরীণ গ্রুপিং এর জন্য অনেক কিছুই আমাদের নাগালের বাইরে চলে গেছে। তাই আসন্ন নির্বাচনের আগে যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি বাদ দিয়ে নিজের রাজনীতি করে, দলের মধ্যে গ্রুপিং করে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিয়ে দলের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপডেট সময় : 01:36:59 pm, Saturday, 9 September 2023
47 বার পড়া হয়েছে
error: Content is protected !!

পঞ্চগড়ে আওয়ামীলীগের জন্য নিবেদিত প্রাণ তৌহিদ বিডিআর 

আপডেট সময় : 01:36:59 pm, Saturday, 9 September 2023

মোঃ রাশেদুল ইসলাম, পঞ্চগড়।

পঞ্চগড়ে নিঃস্বার্থ ভাবে আওয়ামী লীগের জন্য নিবেদিত প্রাণ হিসেবে কাজ করছেন মোঃ তৌহিদুল ইসলাম (তৌহিদ বিডিআর)। সদর উপজেলার ৪নং কামাত কাজলদিঘী ইউনিয়নের দহলা পাড়া গ্রামের বাসিন্দা মোঃ তৌহিদুল ইসলাম। ১লা জানুয়ারি ১৯৭৭ সালে একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল মজিদ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে দেশের স্বাধীনতা অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। মোঃ তৌহিদুল ইসলাম ১৯৯৭ সালে (বিডিআর) বাংলাদেশ রাইফেলস এ যোগদান করেন। পরে ২০১৩ সালে ১৬ বছর ১৮ দিন চাকুরি করে (বিজিবি) বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ থেকে সেচ্ছায় অবসর গ্রহণ করে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত হন। বর্তমানে ৪নং কামাত কাজলদিঘী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড এর সভাপতি ও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করছেন। স্থানীয়রা জানান, জনাব তৌহিদুল ইসলাম (তৌহিদ বিডিআর) অনেক ভালো মনের একজন মানুষ। তিনি কঠোর আওয়ামীলীগ ও সবার সাথে মিশুক। দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে পঞ্চগড় জেলা,উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে অনেক নেতার আঙুল ফুলে কলাগাছ হলেও তৌহিদুল ইসলাম এর কোন উন্নতি হয়নি। অথচ ১জানুয়ারি থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সকল জাতীয় দিবস ও দলীয় কর্মসূচির আয়োজন করেন তিনি নিজ খরচে।তিনি একাধারে সমাজ সেবক, শিক্ষা অনুরাগি, ক্রিয়া ও সংস্কৃতি প্রেমিক। এরকম নিঃস্বার্থ ব্যক্তিরা একটি রাজনৈতিক দলের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বোলে জানান স্থানীয়রা। এ বিষয়ে মোঃ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে আমার পরিবার আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে আসতেছি। আমি বা আমার পরিবার স্বার্থের জন্য আওয়ামীলীগ করি না। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বুকে লালন করে কাজ করছি। সেভাবেই সকল কার্যক্রম পরিচালনা করছি। তবে অনেকেই দলীয় সাইনবোর্ড নিয়ে বেড়ায় অথচ দলের জন্য কাজ করেনা, দলীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে না। এগুলো দেখলে নিজের অনেক খারাপ লাগে। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের চিত্র সকলের সামনে তুলে ধরতে কাজ করছি। বিগত দিনে অভ্যন্তরীণ গ্রুপিং এর জন্য অনেক কিছুই আমাদের নাগালের বাইরে চলে গেছে। তাই আসন্ন নির্বাচনের আগে যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি বাদ দিয়ে নিজের রাজনীতি করে, দলের মধ্যে গ্রুপিং করে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিয়ে দলের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।