10:32 am, Wednesday, 22 May 2024

করিমগঞ্জ থানা পুলিশের অভিযানে ৯ জুয়াড়ি গ্রেপ্তার

মোঃ জনি হোসেন, করিমগঞ্জ প্রতিনিধি।

 চলো যায় যুদ্ধে মাদকের বিরুদ্ধে এই স্লোগানকে সামনে রেখে করিমগঞ্জ উপজেলা জয়কা ইউনিয়নের পূর্ব কান্দাইল মালি বাড়ির ভিটায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে জুয়া খেলার সরঞ্জামসহ ৯ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ।রবিবার (১৫ অক্টোবর ) গোপন সংবাদের ভিত্তিতে করিমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মিজানুর রহমানের নির্দেশনায় করিমগঞ্জ থানার (এসআই) আবু তাহেরের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় করিমগঞ্জ উপজেলা জয়কা ইউনিয়নের পূর্ব কান্দাইল মালি বাড়ির ভিটা থেকে বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৯ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ।

এসময় তাদের কাছ থেকে জুয়া খেলার সরঞ্জাম সহ বিভিন্ন রঙের ৯০ টি তাস১০০ টাকার নোট ১টি ৫০০ টাকার নোট ৩ টি ২০০ টাকার নোট ১টি ১০০ টাকার নোট ৮ টি৫০ টাকার নোট ২টি ২০ টাকার নোট ৩ টি ১০ টাকার নোট ১টি ৫ টাকার নোট ২টি ৩৬৮০ টাকা উদ্ধার করা হয়।গ্রেফতারকৃত জুয়াড়ীরা হলোঃমোঃ আলফান মিয়া (৫২) পিতা-মৃত আহাম্মদ মিয়া, মোঃ আব্দুল হামিদ (৩৮)পিতা -মৃত আব্দুল জলিল, মোঃ আল-আমিন (৩২) পিতা শামছু মিয়া, মোঃ এরশাদ (২৫) পিতা মোঃ খুর্শেদ আলী,মোঃ কাজল মিয়া (৩০) পিতা-মৃত জজ মিয়া,মোঃ নাছির উদ্দিন (৩৬) পিতা -মৃত তৈয়ব আলী, মোঃ আলম মিয়া (২৫) পিতা মোঃ লাল মিয়া, মোঃ আবু হানিফ (২৮) পিতা- মৃত শামছুদ্দিন, মোঃ হাবিবুল্লাহ (৩৩)পিতা মোঃ দিলু মিয়া সর্ব সাং জয়কা করিমগঞ্জ থানা।

করিমগঞ্জ থানার (এসআই) আবু তাহের জানায়, করিমগঞ্জ উপজেলা সাদকখালী মোড়ে ওয়ারেন্ট তামিল ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার ডিউটি করা কালীন গোপন সংবাদের মাধ্যেমে জানতে পারি করিমগঞ্জ উপজেলা জয়কা ইউনিয়নের পূর্ব কান্দাইল মালি বাড়ির ভিটায় জুয়াড়ীগন তাসের মাধ্যমে টাকার বিনিময়ে জুয়া খেলছে উক্ত সংবাদটি করিমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমানকে অবগত করিলে তার নির্দেশনায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয় অভিযান কালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জুয়ারীগন দৌড়াইয়া পালানোর চেষ্টাকালে তাদের গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। উক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে করিমগঞ্জ থানায় জিডি নং ৬৮৫ নন.এফ.আই.আর প্রশিকিউশন নং- ৯৮/২৩ ১৮৬৭ সনের জুয়া আইনের ৪৩ ধারা বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপডেট সময় : 12:42:09 pm, Monday, 16 October 2023
50 বার পড়া হয়েছে
error: Content is protected !!

করিমগঞ্জ থানা পুলিশের অভিযানে ৯ জুয়াড়ি গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : 12:42:09 pm, Monday, 16 October 2023

 চলো যায় যুদ্ধে মাদকের বিরুদ্ধে এই স্লোগানকে সামনে রেখে করিমগঞ্জ উপজেলা জয়কা ইউনিয়নের পূর্ব কান্দাইল মালি বাড়ির ভিটায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে জুয়া খেলার সরঞ্জামসহ ৯ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ।রবিবার (১৫ অক্টোবর ) গোপন সংবাদের ভিত্তিতে করিমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মিজানুর রহমানের নির্দেশনায় করিমগঞ্জ থানার (এসআই) আবু তাহেরের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় করিমগঞ্জ উপজেলা জয়কা ইউনিয়নের পূর্ব কান্দাইল মালি বাড়ির ভিটা থেকে বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৯ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ।

এসময় তাদের কাছ থেকে জুয়া খেলার সরঞ্জাম সহ বিভিন্ন রঙের ৯০ টি তাস১০০ টাকার নোট ১টি ৫০০ টাকার নোট ৩ টি ২০০ টাকার নোট ১টি ১০০ টাকার নোট ৮ টি৫০ টাকার নোট ২টি ২০ টাকার নোট ৩ টি ১০ টাকার নোট ১টি ৫ টাকার নোট ২টি ৩৬৮০ টাকা উদ্ধার করা হয়।গ্রেফতারকৃত জুয়াড়ীরা হলোঃমোঃ আলফান মিয়া (৫২) পিতা-মৃত আহাম্মদ মিয়া, মোঃ আব্দুল হামিদ (৩৮)পিতা -মৃত আব্দুল জলিল, মোঃ আল-আমিন (৩২) পিতা শামছু মিয়া, মোঃ এরশাদ (২৫) পিতা মোঃ খুর্শেদ আলী,মোঃ কাজল মিয়া (৩০) পিতা-মৃত জজ মিয়া,মোঃ নাছির উদ্দিন (৩৬) পিতা -মৃত তৈয়ব আলী, মোঃ আলম মিয়া (২৫) পিতা মোঃ লাল মিয়া, মোঃ আবু হানিফ (২৮) পিতা- মৃত শামছুদ্দিন, মোঃ হাবিবুল্লাহ (৩৩)পিতা মোঃ দিলু মিয়া সর্ব সাং জয়কা করিমগঞ্জ থানা।

করিমগঞ্জ থানার (এসআই) আবু তাহের জানায়, করিমগঞ্জ উপজেলা সাদকখালী মোড়ে ওয়ারেন্ট তামিল ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার ডিউটি করা কালীন গোপন সংবাদের মাধ্যেমে জানতে পারি করিমগঞ্জ উপজেলা জয়কা ইউনিয়নের পূর্ব কান্দাইল মালি বাড়ির ভিটায় জুয়াড়ীগন তাসের মাধ্যমে টাকার বিনিময়ে জুয়া খেলছে উক্ত সংবাদটি করিমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমানকে অবগত করিলে তার নির্দেশনায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয় অভিযান কালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জুয়ারীগন দৌড়াইয়া পালানোর চেষ্টাকালে তাদের গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। উক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে করিমগঞ্জ থানায় জিডি নং ৬৮৫ নন.এফ.আই.আর প্রশিকিউশন নং- ৯৮/২৩ ১৮৬৭ সনের জুয়া আইনের ৪৩ ধারা বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়।