সংবাদ শিরোনাম ::
পঞ্চগড়ের বোদায় গাঁজাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। পীরগঞ্জে ভাষার সাথে প্রতিযোগিতা  পীরগঞ্জে ইকো পাঠশালার বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও পুরস্কার বিতরণ ফুলবাড়ী সরকারি কলেজ চত্বরে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন॥ ফুলবাড়ী বিজিবি সদর দপ্তরে ৭ কোটি ৫৯ লক্ষ ৩৬ হাজার টাকার অবৈধ্য মাদক ধ্বংস মোতাবেক অনুপ্রবেশকৃত হাতি দু’টি ভারতে ফেরত পাঠানোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় ঘোড়াঘাটে শহীদ দিবস পালিত আনভিল বাপ্পি ঘোড়াঘাট দেওয়ানগঞ্জে ২৬ তম ব্যবসায়ী কর্মচারী কল্যাণ সমিতির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত পীরগঞ্জে ২১ ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ২০২৪ ফুলবাড়ীতে বাবুল,মঞ্জু,নীরুকে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী হিসাবে ঘোষনা

রাইপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে রাতের আধারে সরকারি জমি দখলের অভিযোগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৫:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৯ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক আজকের কন্ঠের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক.

ঢাকার দোহার উপজেলার রাইপাড়া ইউনিয়নের পালামগঞ্জ বাজার সংলগ্ন এলাকায় রাতের আধারে ইউনিয়ন পরিষদের নামে সরকারি জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন এর বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার বড় ইকরাশি মৌজায় আরএস ১৪৬৩ দাগে ইউনিয়ন পরিষদের নামে ৯ শতাংশ জমি থাকলেও একই মৌজার ১৪৬৪ দাগে কিছুদিন আগে পরিষদের সাইনবোর্ড স্থাপন করেন ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন। পরে ১২ ই ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে ঘর তুলে দখলে নেন সরকারি জমিটি। এমন ঘটনায় স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেকে জানান, চেয়ারম্যান এর ভয়ে কেউ কোন কথা বলতে সাহস পাননা। রাতের আধারে জমি দখলের প্রতিবাদ জানান অনেকে। খোঁজ নিয়ে আরও জানা যায় পালামগঞ্জ বাজারের বটতলার পাশে আরও একটি জমি দখল করে দোকান পরিচালনা করছেন ঐ এলাকার ছেলামত হোসেন নামে এক ব্যক্তি। তিনিও ১২ ই ফেব্রুয়ারি রাতের বেলায় বেশ কয়েকটি সিমেন্টের খুঁটি দিয়ে আরও কিছু অংশ দখল করেন। ছেলামত হোসেন বলেন, আমি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনকে জানিয়েই এই খুঁটি দিয়েছি।স্থানীয়রা আরও জানান, কিছুদিন পূর্বে একই বাজারের কিছু ব্যবসায়ীকে জোরপূর্বক দোকান ছেড়ে দিতে বলেন আমজাদ হোসেন।এবিষয়ে আমজাদ হোসেনের কাছে জানতে চাইলে প্রথমে তিনি জমি দখলের বিষয়ে অস্বিকার করলেও পরে বলেন এখানে ইউনিয়ন পরিষদের জমি আছে তাই সাইনবোর্ড দেয়া হয়েছে। রাতের আধারে ঘর কে তুলেছে এবিষয়ে আমি জানিনা। জমি পরিমাপ হলে যেখানে সীমানা আসবে সরিয়ে নেয়া হবে। পরিমাপের আগেই কিভাবে ঘর তুললেন জানতে চাইলে তিনি কোন উত্তর দিতে পারেননি। এদিকে ছেলামত হোসেনের দোকানের বিষয়ে তিনি বলেন সরকারি জমিতে তিনি অনেকদিন ধরেই আছেন আমি তাকে শুধু ঘর ঠিক করে নিতে বলেছি।

এবিষয়ে দোহার উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মামুন খান জানান, আমজাদ চেয়ারম্যান পরিষদের জমি পরিমাপের জন্য আবেদন করেছেন। পরিমাপের আগে স্থাপণা নির্মানের সুযোগ নেই। এবিষয়ে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

error: Content is protected !!

রাইপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে রাতের আধারে সরকারি জমি দখলের অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৬:৫৫:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক.

ঢাকার দোহার উপজেলার রাইপাড়া ইউনিয়নের পালামগঞ্জ বাজার সংলগ্ন এলাকায় রাতের আধারে ইউনিয়ন পরিষদের নামে সরকারি জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন এর বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার বড় ইকরাশি মৌজায় আরএস ১৪৬৩ দাগে ইউনিয়ন পরিষদের নামে ৯ শতাংশ জমি থাকলেও একই মৌজার ১৪৬৪ দাগে কিছুদিন আগে পরিষদের সাইনবোর্ড স্থাপন করেন ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন। পরে ১২ ই ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে ঘর তুলে দখলে নেন সরকারি জমিটি। এমন ঘটনায় স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেকে জানান, চেয়ারম্যান এর ভয়ে কেউ কোন কথা বলতে সাহস পাননা। রাতের আধারে জমি দখলের প্রতিবাদ জানান অনেকে। খোঁজ নিয়ে আরও জানা যায় পালামগঞ্জ বাজারের বটতলার পাশে আরও একটি জমি দখল করে দোকান পরিচালনা করছেন ঐ এলাকার ছেলামত হোসেন নামে এক ব্যক্তি। তিনিও ১২ ই ফেব্রুয়ারি রাতের বেলায় বেশ কয়েকটি সিমেন্টের খুঁটি দিয়ে আরও কিছু অংশ দখল করেন। ছেলামত হোসেন বলেন, আমি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনকে জানিয়েই এই খুঁটি দিয়েছি।স্থানীয়রা আরও জানান, কিছুদিন পূর্বে একই বাজারের কিছু ব্যবসায়ীকে জোরপূর্বক দোকান ছেড়ে দিতে বলেন আমজাদ হোসেন।এবিষয়ে আমজাদ হোসেনের কাছে জানতে চাইলে প্রথমে তিনি জমি দখলের বিষয়ে অস্বিকার করলেও পরে বলেন এখানে ইউনিয়ন পরিষদের জমি আছে তাই সাইনবোর্ড দেয়া হয়েছে। রাতের আধারে ঘর কে তুলেছে এবিষয়ে আমি জানিনা। জমি পরিমাপ হলে যেখানে সীমানা আসবে সরিয়ে নেয়া হবে। পরিমাপের আগেই কিভাবে ঘর তুললেন জানতে চাইলে তিনি কোন উত্তর দিতে পারেননি। এদিকে ছেলামত হোসেনের দোকানের বিষয়ে তিনি বলেন সরকারি জমিতে তিনি অনেকদিন ধরেই আছেন আমি তাকে শুধু ঘর ঠিক করে নিতে বলেছি।

এবিষয়ে দোহার উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মামুন খান জানান, আমজাদ চেয়ারম্যান পরিষদের জমি পরিমাপের জন্য আবেদন করেছেন। পরিমাপের আগে স্থাপণা নির্মানের সুযোগ নেই। এবিষয়ে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।