8:52 am, Friday, 19 April 2024

আলোচিত জলিল ফকির হত্যার বিচারের দাবিতে বরগুনার চালিতাতলীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন

প্রতিনিধির নাম

বরগুনা সংবাদদাতা:

আলোচিত জলিল ফকির হত্যার বিচারের দাবিতে নাসির মেম্বার ও লাকি আক্তার এর ফাঁসির দাবিতে বরগুনার চালিতাতলীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ইং) সকাল দশটায় সদর উপজেলার ,এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের , উরবুনিয়া গ্রামে শতাধিক এলাকাবাসী ও স্বজনের ঘন্টা ব্যাপী এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। নিহত জলিল ফকির মৃত্যু মজিবর ফকিরের ছেলে। বক্তারা বলেন মেম্বার পূর্বের নির্ধারিত টাইমে সালিশ করতে ব্যর্থ হওয়ায় ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার জলিল ফকির নাসির মেম্বারের কাছে জমাকৃত সালিশ বৈঠকের দেড় লক্ষ টাকা, দুইটি ব্ল্যাংক স্ট্যাম্পের অচলনামা নেয়ার জন্য আসছিলেন, মেম্বার সালিশ করবেনা মর্মে জলিলকে জানায় তার দোকান থেকে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে মারা যেতে বলেন, রাগান্বিত হয়ে গ্যাস ট্যাবলেট জলিলকে দিলে জলিল অনুমান দশটায় চালিতাতলী খেয়া ঘাটের উত্তর পাশে গিয়ে পথের মধ্যে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে মারা যায়। এঘটনায় জলিলের পরকীয়া প্রেমিকা লাকি আক্তার ও নাশির মেম্বারকে দোষী সাব্যস্ত করেন এলাকাবাসী ও স্বজনরা। তারা এ হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত নাসির মেম্বার ও লাকি আক্তারের ফাঁসি চাঁন।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপডেট সময় : 02:54:40 pm, Sunday, 18 February 2024
37 বার পড়া হয়েছে
error: Content is protected !!

আলোচিত জলিল ফকির হত্যার বিচারের দাবিতে বরগুনার চালিতাতলীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন

আপডেট সময় : 02:54:40 pm, Sunday, 18 February 2024

বরগুনা সংবাদদাতা:

আলোচিত জলিল ফকির হত্যার বিচারের দাবিতে নাসির মেম্বার ও লাকি আক্তার এর ফাঁসির দাবিতে বরগুনার চালিতাতলীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ইং) সকাল দশটায় সদর উপজেলার ,এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের , উরবুনিয়া গ্রামে শতাধিক এলাকাবাসী ও স্বজনের ঘন্টা ব্যাপী এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। নিহত জলিল ফকির মৃত্যু মজিবর ফকিরের ছেলে। বক্তারা বলেন মেম্বার পূর্বের নির্ধারিত টাইমে সালিশ করতে ব্যর্থ হওয়ায় ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার জলিল ফকির নাসির মেম্বারের কাছে জমাকৃত সালিশ বৈঠকের দেড় লক্ষ টাকা, দুইটি ব্ল্যাংক স্ট্যাম্পের অচলনামা নেয়ার জন্য আসছিলেন, মেম্বার সালিশ করবেনা মর্মে জলিলকে জানায় তার দোকান থেকে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে মারা যেতে বলেন, রাগান্বিত হয়ে গ্যাস ট্যাবলেট জলিলকে দিলে জলিল অনুমান দশটায় চালিতাতলী খেয়া ঘাটের উত্তর পাশে গিয়ে পথের মধ্যে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে মারা যায়। এঘটনায় জলিলের পরকীয়া প্রেমিকা লাকি আক্তার ও নাশির মেম্বারকে দোষী সাব্যস্ত করেন এলাকাবাসী ও স্বজনরা। তারা এ হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত নাসির মেম্বার ও লাকি আক্তারের ফাঁসি চাঁন।