7:40 pm, Thursday, 30 May 2024

বরগুনায় সূর্যমুখী হাইসান ৩৬ এর ভূমিকা শীর্ষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

প্রতিনিধির নাম

সোহরাব বরগুনা সংবাদদাতা:

ভোজ্য তেলের বাড়তি চাহিদা পূরণে সূর্যমুখী হাইসান ৩৬ এর ভূমিকা শীর্ষক মাঠ দিবস বরগুনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২৭শে এপ্রিল ২০২৪) বরগুনা সদর উপজেলার, ১০নং নলটোনা ইউনিয়নের, আজগরকাঠী এলাকায় এরিয়া ম্যানেজার এসিআই সীড বরিশাল অঞ্চল ফেরদৌস আলমের সঞ্চালনায়। বিজনেস ডাইরেক্টর এসিআই সীড জনাব সুধীর চন্দ্রনাথ এর সভাপতিত্বে, এসিআই সীড কর্তৃক বাজারজাত কৃত হাইব্রিড সূর্যমুখী বীজ হাইসান ৩৬ এর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান অতিথি ছিলেন, মোঃ যুবাইর হোসেন বাবলু যুগ্ম সচিব ডাইরেক্টর জেনারেল বীজ উইং বাংলাদেশ কৃষি মন্ত্রণালয় ঢাকা। বিশেষ অতিথি ছিলেন মোঃ সাইফুল আলম অতিরিক্ত পরিচালক সরেজমিন উইং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ঢাকা। এএসএম বদরুল আলম এডি বরগুনা , মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বরগুনা সদর, ও এলাকার কৃষক ও কৃষাণী প্রধান অতিথি বলেন বর্তমান বৈশ্বিক বিরূপ আবহাওয়ায় তাপমাত্রা ও লবনাক্ততা বৃদ্ধির কারনে দক্ষিনাঞ্চলের কৃষি জীবন ও জীবিকা আজ হুমকির সম্মুখীন। বাংলাদেশ মাত্র ১২% ভোজ্য তেল উৎপাদন করতে সক্ষম, বাকি ৮৮% আমদানি নির্ভর। ফলে প্রতি বছর ভোজ্য তেল আমদানিতে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় করতে হয়।

শস্য নিবিড়তা বাড়ানোর মাধ্যেমে দক্ষিনাঞ্চলের কৃষিতে প্রান সঞ্চারনের জন্য হাইব্রিড সূয্যমুখী চাষের মাধ্যমে এক যুগান্তকারী পরির্বতন সম্ভব। হাইব্রীড সূর্যমুখী হাইসান ৩৬ স্বল্পমেয়াদী ক্ষরা ও লবনাক্ততা সহনশীল, যা উপকুলিয় আঞ্চলের প্রতিকূলতা মোকাবেলায় সক্ষম। জীবন কাল ১০০-১১০ দিন এবং তেলের পরিমান ৪৬ ৪৮ শতাংশ। ইতমধ্যে দক্ষিনাঞ্চল সহ সারাদেশে এই ফসলটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। কৃষকেরা আবাদ কৃত এই ফসল সহজেই দানা হিসাবে বিক্রয় করতে পারে আবার স্থানীয় ঘানীতে মাড়াই করে তাদের ভোজ্যতেলের চাহিদা পুরন করতে পারে। ক্রমান্বয়ে বনিজ্যিক আবাদ উনড়বত মানের তেল মাড়াই মেশিন আমদানিতে ক্ষুদ্র উদ্যেক্তাদের উদ্বুদ্ধ করবে। যা এই ফসলের আবাদ ক্রমে বাড়াবে, এভাবেই বাংলাদেশ ক্রমে ভোজ্যতেল উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্নতা অর্জন করবে।

হাইব্রীড সূর্যমূখী হাইসান ৩৬ এর ফলন ১২-১২.৫ মন/বিঘা যার বাজার মূল্য ৩০,০০০ টাকা, যা একই সময় চাষকৃত ডাল ফসলের চেয়ে অধিক মুনাফা পাওয়া যায়।

কৃষি মন্ত্রনালয়, বিএডিসি এবং জেলা কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তাগন সাবিক ভাবে মাঠ পরিদর্শন করেন এবং এসিআই এর হাইব্রীড সূর্যমুখী বীজ হাইসান ৩৬ এর ফলনে সন্তুষ্ট হয়ে স্থানীয় কৃষকদের আগামী দিন গুলোতে হাইব্রীড সূর্যমুখী হাইসান ৩৬ চাষ করার জন্য উদ্বুদ্ধ করেন। অনুষ্ঠানে স্থানীয় কৃষক মো: বনী-আমিন কে এসিআই সীডের পক্ষথেকে পুরস্কৃত করেন।

সংশ্লিষ্ট মহল আশা করছে যে, আগামী দিনে এসিআই সীড এর হাইব্রীড সূর্যমুখী বীজ হাইসান ৩৬ বাংলাদেশের কৃষকেরা ব্যাপক ভাবে চাষ করবে যা আমাদের দেশের তেলের চাহিদা পূরণ করবে এবং প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করবে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপডেট সময় : 08:47:18 pm, Saturday, 27 April 2024
24 বার পড়া হয়েছে
error: Content is protected !!

বরগুনায় সূর্যমুখী হাইসান ৩৬ এর ভূমিকা শীর্ষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : 08:47:18 pm, Saturday, 27 April 2024

সোহরাব বরগুনা সংবাদদাতা:

ভোজ্য তেলের বাড়তি চাহিদা পূরণে সূর্যমুখী হাইসান ৩৬ এর ভূমিকা শীর্ষক মাঠ দিবস বরগুনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২৭শে এপ্রিল ২০২৪) বরগুনা সদর উপজেলার, ১০নং নলটোনা ইউনিয়নের, আজগরকাঠী এলাকায় এরিয়া ম্যানেজার এসিআই সীড বরিশাল অঞ্চল ফেরদৌস আলমের সঞ্চালনায়। বিজনেস ডাইরেক্টর এসিআই সীড জনাব সুধীর চন্দ্রনাথ এর সভাপতিত্বে, এসিআই সীড কর্তৃক বাজারজাত কৃত হাইব্রিড সূর্যমুখী বীজ হাইসান ৩৬ এর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান অতিথি ছিলেন, মোঃ যুবাইর হোসেন বাবলু যুগ্ম সচিব ডাইরেক্টর জেনারেল বীজ উইং বাংলাদেশ কৃষি মন্ত্রণালয় ঢাকা। বিশেষ অতিথি ছিলেন মোঃ সাইফুল আলম অতিরিক্ত পরিচালক সরেজমিন উইং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ঢাকা। এএসএম বদরুল আলম এডি বরগুনা , মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বরগুনা সদর, ও এলাকার কৃষক ও কৃষাণী প্রধান অতিথি বলেন বর্তমান বৈশ্বিক বিরূপ আবহাওয়ায় তাপমাত্রা ও লবনাক্ততা বৃদ্ধির কারনে দক্ষিনাঞ্চলের কৃষি জীবন ও জীবিকা আজ হুমকির সম্মুখীন। বাংলাদেশ মাত্র ১২% ভোজ্য তেল উৎপাদন করতে সক্ষম, বাকি ৮৮% আমদানি নির্ভর। ফলে প্রতি বছর ভোজ্য তেল আমদানিতে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় করতে হয়।

শস্য নিবিড়তা বাড়ানোর মাধ্যেমে দক্ষিনাঞ্চলের কৃষিতে প্রান সঞ্চারনের জন্য হাইব্রিড সূয্যমুখী চাষের মাধ্যমে এক যুগান্তকারী পরির্বতন সম্ভব। হাইব্রীড সূর্যমুখী হাইসান ৩৬ স্বল্পমেয়াদী ক্ষরা ও লবনাক্ততা সহনশীল, যা উপকুলিয় আঞ্চলের প্রতিকূলতা মোকাবেলায় সক্ষম। জীবন কাল ১০০-১১০ দিন এবং তেলের পরিমান ৪৬ ৪৮ শতাংশ। ইতমধ্যে দক্ষিনাঞ্চল সহ সারাদেশে এই ফসলটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। কৃষকেরা আবাদ কৃত এই ফসল সহজেই দানা হিসাবে বিক্রয় করতে পারে আবার স্থানীয় ঘানীতে মাড়াই করে তাদের ভোজ্যতেলের চাহিদা পুরন করতে পারে। ক্রমান্বয়ে বনিজ্যিক আবাদ উনড়বত মানের তেল মাড়াই মেশিন আমদানিতে ক্ষুদ্র উদ্যেক্তাদের উদ্বুদ্ধ করবে। যা এই ফসলের আবাদ ক্রমে বাড়াবে, এভাবেই বাংলাদেশ ক্রমে ভোজ্যতেল উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্নতা অর্জন করবে।

হাইব্রীড সূর্যমূখী হাইসান ৩৬ এর ফলন ১২-১২.৫ মন/বিঘা যার বাজার মূল্য ৩০,০০০ টাকা, যা একই সময় চাষকৃত ডাল ফসলের চেয়ে অধিক মুনাফা পাওয়া যায়।

কৃষি মন্ত্রনালয়, বিএডিসি এবং জেলা কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তাগন সাবিক ভাবে মাঠ পরিদর্শন করেন এবং এসিআই এর হাইব্রীড সূর্যমুখী বীজ হাইসান ৩৬ এর ফলনে সন্তুষ্ট হয়ে স্থানীয় কৃষকদের আগামী দিন গুলোতে হাইব্রীড সূর্যমুখী হাইসান ৩৬ চাষ করার জন্য উদ্বুদ্ধ করেন। অনুষ্ঠানে স্থানীয় কৃষক মো: বনী-আমিন কে এসিআই সীডের পক্ষথেকে পুরস্কৃত করেন।

সংশ্লিষ্ট মহল আশা করছে যে, আগামী দিনে এসিআই সীড এর হাইব্রীড সূর্যমুখী বীজ হাইসান ৩৬ বাংলাদেশের কৃষকেরা ব্যাপক ভাবে চাষ করবে যা আমাদের দেশের তেলের চাহিদা পূরণ করবে এবং প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করবে।